বড়দিনের ছুটিতে ঘুরে আসুন কাঞ্চনজঙ্ঘা

Total Views : 181
Zoom In Zoom Out Read Later Print

কাঞ্চনজঙ্ঘা মূলত হিমালয় পর্বতমালার পর্বতশৃঙ্গ। মাউন্ট এভারেস্ট ও কেটু’র পরে এটি পৃথিবীর তৃতীয় উচ্চতম পর্বতশৃঙ্গ। যার উচ্চতা ৮,৫৮৬ মিটার বা ২৮,১৬৯ ফুট। এটি ভারতের সিকিম রাজ্যের সঙ্গে নেপালের পূর্বাঞ্চলীয় সীমান্তে অবস্থিত। হিমালয় পৰ্বতের এই অংশটিকে ‘কাঞ্চনজঙ্ঘা হিমল’ বলা হয়। এর পশ্চিমে তামুর নদী, উত্তরে লহনাক চু নদী। এছাড়া জংসং লা শৃঙ্গ এবং পূর্বদিকে তিস্তা নদী অবস্থিত।

পৃথিবীর তৃতীয় উচ্চতম শৃঙ্গ কাঞ্চনজঙ্ঘা দেখতে সারা পৃথিবী থেকে সিকিম নেপাল ও পশ্চিমবঙ্গে ভীড় জমান কয়েক হাজার পর্যটক। পশ্চিমবঙ্গের বহু জায়গা থেকেই পাহাড়ের রানি কাঞ্চনজঙ্ঘা দেখা যায়। নিউ জলপাইগুড়ি পেরোলেই উঁকি দেয় সে।


এখানে এমন কিছু জায়গার হদিশ পাবেন, কাঞ্চনজঙ্ঘাকে ভালোবাসলে সে জায়গাগুলোতে পা রাখতে যেতেই হবে আপনাকে। দার্জিলিংয়ের টাইগার হিল থেকে আকাশ পরিষ্কার থাকলেই দেখা মেলে ঝকঝকে কাঞ্চনজঙ্ঘা। দেখতে পারবেন কালিম্পংয়ের নয়নাভিরাম দৃশ্য।


এছাড়া লাভার সরকারি বন বাংলোর জানালা থেকে দেখা যায় কাঞ্চনজঙ্ঘা। এমনকি টংলুতে রিসোর্টের বাইরে বের হলেই দেখা মিলবে তার। শীতের মিঠা রোদে ধোতরেও অনন্য স্থানটি। চাইলে ট্রেকারস হাট থেকে দেখতে পারেন। বিকেলের দিকে যেতে পারেন ফালুটে।


কিন্তু চটকপুর থেকে কাঞ্চনজঙ্ঘার ‘স্লিপিং বুদ্ধ’ বিভঙ্গ অনন্য লাগবে দেখতে। যদিও কালেভদ্রে দেখা মেলে তার। আর বৃষ্টি শেষের রিশপ হয়ে উঠবে অনন্য অপ্সরীর মতো। সান্দাকফুতে ছোট বড় নানা মাপের রিসোর্ট রয়েছে। সেখান থেকেও কাঞ্চনজঙ্ঘা দৃশ্যমান। তাই দেরি না করে আসছে বড়দিনের ছুটিতে ঘুরে আসুন কাঞ্চনজঙ্ঘা।

See More

Latest Photos